Pre-loader logo

সাংবাদিক দিদারুল আলমের পরিবারের পাশে বসুন্ধরা গ্রুপ

সাংবাদিক দিদারুল আলমের পরিবারের পাশে বসুন্ধরা গ্রুপ

চট্টগ্রামের সদ্যপ্রয়াত আলোকচিত্র সাংবাদিক দিদারুল আলমের পরিবারের পাশে দাঁড়াল বসুন্ধরা গ্রুপ। বাংলাদেশ প্রতিদিন চট্টগ্রাম অফিসের সিনিয়র এই ফটো সাংবাদিকের একমাত্র কন্যার হাতে ১০ লাখ টাকার সহায়তা চেক তুলে দিয়েছেন বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীর। এ সময় তিনি চট্টগ্রামের সংবাদমাধ্যমকর্মীদের কাজের প্রশংসা করে বলেন, ‘চট্টগ্রামের মাটি ও মানুষের সাথে থাকবে বসুন্ধরা গ্রুপ। ক্রমশ নতুনতর উদ্যোগে নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টির পাশাপাশি মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে কাজ করছে দেশের এই বৃহৎ শিল্প পরিবার।’

তিনি বলেন, ‘চট্টগ্রামের সম্পদের সঠিক ব্যবহার ও সম্ভাবনার সবটুকু অর্জনে গণমাধ্যমকর্মীদের বিশেষ ভূমিকা ও সহযোগিতা গুরুত্বপূর্ণ। গণমাধ্যমকর্মীদের ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি জাতীয় অগ্রগতিও ত্বরান্বিত করে। সরকারি-বেসরকারি উদ্যোগে সংবাদমাধ্যমকর্মীদের এমন দৃষ্টিভঙ্গি প্রণোদনার মতোই।’

তিনি মরহুম সাংবাদিক দিদারুল আলমের নিবেদিত ভূমিকার কথাও উল্লেখ করেন। দিদারুল আলমের স্ত্রী দিলরুবা বেগম দীপ্তি ও স্কুলপড়ুয়া কন্যা সামান্তা দিদার দীঘিকে সান্ত্বনা দেন এবং কন্যার ভবিষ্যৎ সাফল্য কামনা করেন।

বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক ও নিউজ টোয়েন্টিফোরের প্রধান নির্বাহী সিনিয়র সাংবাদিক নঈম নিজাম বলেন, যেকোনো মূল্যে বসুন্ধরা গ্রুপ গণমাধ্যমকর্মীদের পাশে ছিল, থাকবে।

বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় বসুন্ধরা এমডি হাউসে এ সহায়তা চেক তুলে দেওয়া হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, রংধনু গ্রুপের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রফিক, বসুন্ধরা গ্রুপের মিডিয়া অ্যাডভাইজর মোহাম্মদ আবু তৈয়ব, কালের কণ্ঠ সম্পাদক ও ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের পরিচালক ইমদাদুল হক মিলন, নিউজ টোয়েন্টিফোরের বার্তাপ্রধান রাহুল রাহা, বাংলানিউজ টোয়েন্টিফোরের সম্পাদক জুয়েল মাজহারসহ ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের কমকর্তারা। চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মোহাম্মদ আলী, সাধারণ সম্পাদক ম শামসুল ইসলাম প্রমুখও উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, দিদারুল আলম বিএফইউজে-বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের নির্বাহী কমিটির সদস্য ও চট্টগ্রাম ফটোজার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ছিলেন।

Copyright © 2021 Sayem Sobhan Anvir. All Rights Reserved.