Pre-loader logo

ষষ্ঠবার সেরা করদাতা সম্মাননা গ্রহণ ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের

ষষ্ঠবার সেরা করদাতা সম্মাননা গ্রহণ ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের

ষষ্ঠবারের মতো সেরা করদাতা প্রতিষ্ঠানের সম্মাননা পেল দেশের শীর্ষ শিল্পপ্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেড (ইডব্লিউএমজিএল)। ২০২০-২১ করবর্ষের জন্য প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া ক্যাটাগরিতে ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেড পুনরায় সেরা করদাতা প্রতিষ্ঠান নির্বাচিত হয়েছে। এ প্রতিষ্ঠানের মালিকানাধীন গণমাধ্যমগুলো হলো- বাংলাদেশ প্রতিদিন, কালের কণ্ঠ, ইংরেজি ডেইলি সান, অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলানিউজ-টোয়েন্টিফোর ডটকম, নিউজ টোয়েন্টিফোর টেলিভিশন, টি স্পোর্টস এবং রেডিও ক্যাপিটাল।

গতকাল রাজধানীর অফিসার্স ক্লাব মিলনায়তনে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) আয়োজিত সেরা করদাতাদের ‘ট্যাক্স কার্ড ও সম্মাননা প্রদান’ অনুষ্ঠানে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন ও এনবিআর চেয়ারম্যান আবু হেনা মো. রহমাতুল মুনিমের হাত থেকে ইডব্লিউএমজিএলের পক্ষে এ ট্যাক্স কার্ড ও সম্মাননা গ্রহণ করেন বসুন্ধরা গ্রুপের (সেক্টর-বি) হেড অব ফাইন্যান্স নুরে আলম সিদ্দিকী। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, ‘দেশের অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে সরকারকে যে উন্নয়ন ব্যয় করতে হয় তার মূল জোগান আসে রাজস্ব ব্যবস্থা থেকে। এ দেশের করদাতাদের টাকায়ই আজ নির্মিত হচ্ছে পদ্মা সেতুসহ বিভিন্ন মেগা প্রকল্প। ২০৩৫ সালের মধ্যে বাংলাদেশ বিশ্বের ২৫তম অর্থনীতির দেশে পরিণত হবে। আমাদের এখন লক্ষ্য এ সাফল্যের ধারাবাহিকতায় ২০৩০ সালে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য বা এসডিজি অর্জন ও বাংলাদেশকে উচ্চ-মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করা এবং ২০৪১ সালে সুখী, সমৃদ্ধ উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হওয়ার জন্য সঠিক অর্থনৈতিক ভিত্তি তৈরি করে দেওয়া।’ আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, ‘আমাদের উন্নয়ন অভিযাত্রাকে সফল করতে অভ্যন্তরীণ উৎস থেকে সম্পদের জোগান বাড়াতে হবে। রাজস্ব অনুপাত এখনো আমাদের প্রতিবেশী ও উন্নয়ন প্রতিযোগী অনেক দেশের তুলনায় কম। এ বিষয়ে আমাদের আরও কাজ করতে হবে। বর্তমানে দেশে একটি করদাতাবান্ধব পরিবেশ তৈরি হয়েছে। করদাতার সংখ্যাও প্রত্যাশিত হারে বাড়ছে। ফলে রাজস্ব আদায়ের পরিমাণও বৃদ্ধি পাচ্ছে। আশার কথা হলো আমরা দেখতে পাচ্ছি জনগণের মধ্যে কর প্রদানের আগ্রহ বাড়ছে।’

এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন বলেন, হয়রানি ও আতঙ্ক মুক্তভাবে ব্যবসায়ীরা আয়কর প্রদানে আগ্রহী। এ কারণে আয়কর প্রশাসনকে ঢেলে সাজিয়ে দক্ষ, পেশাদার, আধুনিক প্রযুক্তিনির্ভর ও সেবাধর্মী প্রতিষ্ঠানে পরিণত করতে হবে, যাতে করদাতারা স্বেচ্ছায় ঝামেলামুক্তভাবে আয়কর প্রদানে এগিয়ে আসতে পারেন। তা ছাড়া কর বিভাগের পলিসি উইং এবং কর আদায় বিভাগকে পৃথক করা জরুরি। এতে সরকারের গৃহীত পরিকল্পনা বাস্তবায়ন সহজ হবে এবং ট্যাক্স-জিডিপি অনুপাত বৃদ্ধি পাবে। আয়কর বিভাগের অটোমেশন কার্যক্রম আরও শক্তিশালী করার মাধ্যমে স্বচ্ছ ও হয়রানিমুক্তভাবে নতুন নতুন আয়করদাতাকে ট্যাক্স নেটের আওতায় আনতে হবে। এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, নতুন নতুন আয়করদাতা আনতে হলে কর কর্মকর্তাদের স্বেচ্ছাক্ষমতা হ্রাস ও সুষ্ঠু পরিবেশ তৈরি করতে হবে। যারা এখনো কর প্রদান করেন না তাদের কর প্রদানে অভ্যস্ত করতে হবে। এজন্য সারা বছর প্রতিটি কমিশনারেটের উদ্যোগে জেলা ও উপজেলা, এমনকি ছোট ছোট পৌরসভা এলাকায় সচেতনতামূলক অনুষ্ঠান করতে হবে। উপজেলা পর্যায়ে কর অফিস বিস্তৃত করা প্রয়োজন। অনুষ্ঠানে এনবিআর জানিয়েছে, ২০২০-২১ অর্থবছরের সেরা করদাতা হিসেবে ১৪১ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠান বিশেষ সম্মাননা ‘ট্যাক্স কার্ড’ এবং সর্বোচ্চ ও দীর্ঘ সময় আয়কর প্রদানকারী ৫২৫ জন সম্মানিত করদাতা সম্মাননা পেয়েছেন। ট্যাক্স কার্ডের জন্য ব্যক্তিশ্রেণিতে ৭৫, কোম্পানি ক্যাটাগরিতে ৫৪ ও অন্যান্য ক্যাটাগরিতে ১২ করদাতাকে সম্মাননা প্রদান করা হয়। এনবিআরের তথ্যনুযায়ী প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া ক্যাটাগরির সেরা ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেড ছাড়াও ট্রান্সক্রাফট লিমিটেড, মিডিয়া স্টার লিমিটেড ও সময় মিডিয়া ট্যাক্স কার্ড এবং সম্মাননা পেয়েছে। অন্যদিকে সাংবাদিক ক্যাটাগরিতে ট্যাক্স কার্ড ও সম্মাননা পেয়েছেন ফরিদুর রেজা সাগর, আবদুল মুকিত মজুমদার, মাহফুজ আনাম, মোহাম্মদ আবদুল মালেক ও মতিউর রহমান।
সিনিয়র সিটিজেন ক্যাটাগরিতে গোলাম দস্তগীর গাজী, খাজা তাজমহল, ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার বদরুল হাসান, ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ও লতিফুর রহমান; গেজেটভুক্ত যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ক্যাটাগরিতে মো. নাসির উদ্দিন মৃধা, মো. জয়নাল আবেদীন, মো. কোহিনুর ইসলাম খান ও এস এম আবদুল ওয়াহাব; প্রতিবন্ধী ক্যাটাগরিতে আকরাম মাহমুদ, ডা. মো. মামুনুর রশিদ ও লুবনা নিগার; মহিলা ক্যাটাগরিতে আনোয়ারা হোসেন, শাহনাজ রহমান, সেলিনা মাহবুব, ফারহানা মোনেম ও মোরশেদা নাসমিন; তরুণ (৪০ বছরের নিচে) ক্যাটাগরিতে আহমেদ ইমতিয়াজ হাসান, এস এম মঞ্জুরুল আলম অভি, মো. ফয়সাল হোসেন, মো. লুৎফর রহমান ও আনিকা তারান্নুম আনাম; ব্যবসায়ী ক্যাটাগরিতে হাজী মো. কাউছ মিয়া, মো. নজরুল মজুমদার, নাফিস শিকদার, মো. শওকত আলী চৌধুরী ও আলহাজ আনোয়ার হোসেন; বেতনভোগী ক্যাটাগরিতে মোহাম্মদ ইউসুফ, হোসনে আরা হোসেন, রুবাইয়াত ফারজানা হোসেন, লায়লা হোসেন, এম এ হায়দার হোসেন; ডাক্তার ক্যাটাগরিতে ডা. জাহাঙ্গীর কবির, অধ্যাপক ডা. এ কে এম ফজলুল হক, প্রফেসর ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত, ডা. এন এ এম মোমেনুজ্জামান ও ডা.নার্গিস সুলতানা; আইনজীবী ক্যাটাগরিতে শেখ ফজলে নূর তাপস, কাজী মোহাম্মদ তানজিবুল আলম, আহসানুল করিম, ব্যারিস্টার নিহাদ কবির ও তোফিকা আফতাব; খেলোয়াড় ক্যাটাগরিতে মো. মাহমুদ উল্লাহ, তামিম ইকবাল খান ও সৌম্য সরকার; অভিনেতা-অভিনেত্রী ক্যাটাগরিতে সুবর্ণা মুস্তাফা, বিদ্যা সিনহা সাহা ও বাবুল আহমেদ; শিল্পী (গায়ক-গায়িকা) ক্যাটাগরিতে তাহসান রহমান খান, এস ডি রুবেল ও কুমার বিশ্বজিৎ দে ট্যাক্স কার্ড ও সম্মাননা পেয়েছেন। এ ছাড়া কিশোরগঞ্জ জেলার দীর্ঘমেয়াদি করদাতা হিসেবে সেরা করদাতার সম্মাননা পেয়েছেন আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ। ব্যাংকিং ক্যাটাগরিতে ইসলামী ব্যাংক, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক, এইচএসবিসি, ব্র্যাক ব্যাংক ও ডাচ্্-বাংলা ব্যাংক। অব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠান ক্যাটাগরিতে আইডিসিএল, বিআইএফএফএল, আইসিবি ও ডেল্টা ব্র্যাক হাউজিং লিমিটেড ট্যাক্স কার্ড ও সম্মাননা পেয়েছে। এ ছাড়া প্রকৌশলী, স্থপতি, অ্যাকাউন্ট্যান্ট, নতুন করদাতা, অন্যান্য, টেলিকমিউনিকেশন, প্রকৌশল, খাদ্য ও আনুষঙ্গিক, জ্বালানি, পাটশিল্প, স্পিনিং, টেক্সটাইল, ওষুধ ও রসায়ন, রিয়েল এস্টেট, তৈরি পোশাক, চামড়াশিল্প, ফার্ম, স্থানীয় কর্তৃপক্ষ, ব্যক্তি সংঘ ক্যাটাগরিতেও ট্যাক্স কার্ড ও সম্মাননা দেওয়া হয়।

Copyright © 2021 Sayem Sobhan Anvir. All Rights Reserved.