Pre-loader logo

শেখ রাসেলের খেলোয়াড়দের আনন্দঘন সন্ধ্যা

শেখ রাসেলের খেলোয়াড়দের আনন্দঘন সন্ধ্যা

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে রানার্স-আপ হওয়া শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের খেলোয়াড়রা ক্লাবের চেয়ারম্যান ও বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহানের সঙ্গে কাল সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন। ঢাকার একটি অভিজাত হোটেলে ঘরোয়া পরিবেশে আয়োজিত সংক্ষিপ্ত অনুষ্ঠানে খেলোয়াড়-কর্মকর্তাদের তিনি অভিনন্দিত করেছেন এই অর্জনের জন্য। পাশাপাশি উৎসাহিত করেছেন আগামী লিগে চ্যাম্পিয়নশিপ ট্রফি জয়ের ব্যাপারেও ‘তোমরা যথেষ্ট ভালো খেলেছ এবারের আসরে। আমরা ধাপে ধাপে এগোতে চাই। এটি হলো প্রথম ধাপ, আগামী মৌসুমে শেখ রাসেল চ্যাম্পিয়ন হবে আশা করি।’ এই আসরের পারফরমেন্সের জন্য খেলোয়াড়-কোচ-কর্মকর্তাদের ২৫ লাখ টাকা বোনাসও দিয়েছেন তিনি।
সায়েম সোবহান চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর এই মৌসুমে শেখ রাসেল চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্যই দল গড়েছিল। সেই লড়াইয়ে তারা ভালোভাবেই ছিল লিগের অনেকটা পর্যন্ত। শেখ জামালের সঙ্গে দ্বিতীয় পর্বের ম্যাচে শেষ মুহূর্তের গোলেই সুযোগটা হাতছাড়া হয়ে যায় তাদের। ক্লাবের ডিরেক্টর ইনচার্জ ইসমত জামিল আকন্দ যেটিকে স্রেফ দুর্ভাগ্যই বলেছেন, ‘বলা যায়, মাত্র মিনিট দুয়েকের ব্যবধানে আমরা শিরোপাটা হারিয়েছি। শেখ জামালের বিপক্ষে শেষ মুহূর্তের গোলে ৪-৩ ব্যবধানের ওই হারটাই শেষ পর্যন্ত শিরোপার ভাগ্য গড়ে দিয়েছে। নইলে এই আসরে শেখ রাসেল চ্যাম্পিয়ন দলের মতোই খেলেছে।’ কাল চেয়ারম্যানের সঙ্গে ট্রফিহাতে খেলোয়াড়দের সৌজন্য সাক্ষাতের সময় ক্লাবের ডিরেক্টর ইনচার্জ ইসমত জামিল ছাড়াও পরিচালক গোলাম রব্বানি হেলাল, নাঈমুর রহমান দুর্জয়, সালেহ জামান সেলিম, ইমদাদুল হক মিলন (পরিচালক ও দৈনিক কালের কণ্ঠ সম্পাদক), নঈম নিজাম (পরিচালক ও বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্পাদক) সহ অন্য পরিচালক ও কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে ছিলেন বসুন্ধরা গ্রুপের প্রেস ও মিডিয়া উপদেষ্টা আবু তৈয়ব। খেলোয়াড়-কর্মকর্তাদের সঙ্গে নৈশভোজ শেষে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র লিমিটেডের চেয়ারম্যান সায়েম সোবহান ট্রফি সামনে রেখে আনুষ্ঠানিক ফটোসেশনেও অংশ নিয়েছেন। এ সময় করতালির মাধ্যমে খেলোয়াড়দের তিনি উৎসাহিত করেছেন। খেলোয়াড়রা জানিয়েছেন, আগামী মৌসুমে শিরোপা জয়ের ব্যাপারে তাঁরাও আত্মবিশ্বাসী।
শোকের মাস আগস্টে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের এই অর্জন বাড়তি মাত্রা যোগ করেছে। ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু পরিবারের সঙ্গে ছোট্ট শেখ রাসেলও ঘাতকের বুলেটে শাহাদতবরণ করেছেন। তার স্মৃতি রক্ষার্থেই এই ক্লাব। বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান গত মৌসুমের শুরুতে চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব নিয়ে বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনে নতুনভাবেই পরিচয় করিয়েছেন এই ক্লাবকে। দেশের ক্রীড়াঙ্গনে উজ্জ্বল অধ্যায় তৈরির প্রথম ধাপেই প্রিমিয়ার ফুটবল আসরে রানার্স-আপ হলো এই দল। জাহিদ হাসান, জাহিদ হোসেন, হেমন্ত ভিনসেন্ট, মিঠুন চৌধুরী, ওয়ালি ফয়সাল, আতিকুর রহমান, তপু বর্মন, রাসেল মাহমুদ, মামুন খানের মতো তারকা ফুটবলাররা এই দলের গর্ব।
অধিনায়ক মিঠুন চৌধুরী ক্লাব কর্তৃপক্ষের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন তাদের অব্যাহত সহায়তা ও উৎসাহের জন্য। আগামী মৌসুমে শিরোপা জয়ের ব্যাপারে তিনিও দারুণ আত্মবিশ্বাসী।

Copyright © 2021 Sayem Sobhan Anvir. All Rights Reserved.