Pre-loader logo

বসুন্ধরা সিটিতে অগ্নিনির্বাপণের সফল মহড়া

বসুন্ধরা সিটিতে অগ্নিনির্বাপণের সফল মহড়া

মঙ্গলবার সকাল ১১টা। এশিয়ার বৃহত্তম শপিং মল বসুন্ধরা সিটির ছাদে হঠাৎ ধোঁয়া উড়তে দেখা যায়। ছড়িয়ে পড়ে আতঙ্ক। তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি ধরা পড়ে বসুন্ধরা সিটির ফায়ার অ্যান্ড সেফটি টিমের কাছে। তারা তৎপর হয় অগ্নিনির্বাপণে। এরই মধ্যে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের সদর দপ্তর ও মোহাম্মদপুর থেকে পাঁচটি ইউনিট দ্রুত ঘটনাস্থলে হাজির। তখন রাস্তায় উৎসুক জনতার ভিড়। বিপণিবিতানটির ভেতরে নিরাপত্তাকর্মীদের ছোটাছুটি। কিন্তু আধাঘণ্টার মধ্যেই সব কিছু চলে আসে নিয়ন্ত্রণে। আগুন নেভানোর পাশাপাশি ‘আহত’ ১৪ জনকে উদ্ধার করা হয়।
না, ওপরের ঘটনাটি আসলে প্রকৃত আগুন লাগার ঘটনা নয়। এটি ছিল অগ্নিনির্বাপণের শিক্ষামূলক মহড়া মাত্র। রাজধানীর পান্থপথের এই অভিজাত শপিং মলটির ছাদ ও কয়েকটি স্থানে আগুনের সূত্রপাত করে ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স এবং বসুন্ধরা সিটি কর্তৃপক্ষ যৌথভাবে অগ্নিনির্বাপণের এই মহড়ায় অংশ নেয়।
এ বিষয়ে ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক মামুন মাহমুদ বলেন, অগ্নিনির্বাপণের এই মহড়ায় আগুনের ভয়াবহতা সম্পর্কে একটি সুস্পষ্ট ধারণা পাওয়া যায়। এর মাধ্যমে অগ্নিনির্বাপণে বসুন্ধরা সিটি এবং ফায়ার সার্ভিসের সক্ষমতা কতটুকু তা বোঝা যায়। বসুন্ধরা সিটির সফল অগ্নিনির্বাপণে সক্ষমতা রয়েছে। এ ধরনের মহড়া অন্য বহুতল ভবনগুলোতেও আয়োজনে সংশ্লিষ্টদের উৎসাহিত করবে।
বসুন্ধরা সিটির উপসহকারী পরিচালক (নিরাপত্তা) মামুন মাহমুদ বলেন, ‘দৈব দুর্ঘটনার প্রকৃত চিত্র কেমন হয় এবং তার ভয়াবহতা সম্পর্কে ধারণা পেতেই আমাদের এই মহড়া। যৌথভাবে এ ধরনের কর্মসূচি আয়োজনের মাধ্যমে আমরা নিজেদের সক্ষমতা সম্পর্কে ধারণা পেয়েছি। এর ফলে যেকোনো ধরনের আগুন নেভাতে আমরা সফল হব।’
বসুন্ধরা সিটি ডেভেলপমেন্ট লিমিটেডের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তর এবং বসুন্ধরা সিটি কর্তৃপক্ষের যৌথ আয়োজনে অগ্নিনির্বাপণ ও প্রতিরোধ মহড়ায় অংশগ্রহণকারীদের আকস্মিক দুর্ঘটনা মোকাবিলা করার বাস্তব প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। মহড়ায় নেতৃত্ব দেন বসুন্ধরা সিটির ঊর্ধ্বতন মহাব্যবস্থাপক (প্রশাসন ও নিরাপত্তা) মেজর (অব.) আবুল কালাম আজাদ। তত্ত্বাবধানে ছিলেন ফায়ার অ্যান্ড সেফটি কর্মকর্তা ময়নুল ইসলাম। এ সময় বসুন্ধরা গ্রুপ চেয়ারম্যানের ঊর্ধ্বতন উপদেষ্টা (কারিগরি) টি আই এম লতিফুল হোসেন, ঊর্ধ্বতন নির্বাহী পরিচালক (হিসাব) শেখ আবদুল আলীম ও বিসিপিএলের বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া বসুন্ধরা সিটি ডেভেলপমেন্ট লিমিটেডের (বিসিডিএল) সব ফায়ার অ্যান্ড সেফটি ও নিরাপত্তা, বিদ্যুৎ, যান্ত্রিক, সিভিল, কেয়ার অ্যান্ড ক্লিন বিভাগের নির্বাচিত কর্মী, বসুন্ধরা গ্রুপের বিভিন্ন ইউনিটের ফায়ার বিভাগের প্রতিনিধি অগ্নিদুর্ঘটনা প্রতিরোধের পদক্ষেপস্বরূপ সফলভাবে এ মহড়া সম্পন্ন করেন।
বসুন্ধরা ফায়ার অ্যান্ড সেফটি (ইনচার্জ) কর্মকর্তা ময়নুল ইসলাম বলেন, মহড়ায় ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিট স্কাইলিফট ও অ্যাম্বুল্যান্স নিয়ে অংশগ্রহণ করে। সকাল ১১টার দিকে বসুন্ধরা সিটির লেভেল-৮-এ আগুনের সূত্রপাত করে এ মহড়া অনুষ্ঠিত হয়। মহড়ার সময় দুটি অ্যাম্বুল্যান্স, একজন চিকিৎসকসহ বসুন্ধরা ফায়ার অ্যান্ড সেফটির অত্যাধুনিক সরঞ্জাম কাজে লাগানো হয়।

Copyright © 2021 Sayem Sobhan Anvir. All Rights Reserved.