Pre-loader logo

পেপারলেস অফিস কার্যক্রমে এগিয়ে যাচ্ছে বসুন্ধরা গ্রুপ

পেপারলেস অফিস কার্যক্রমে এগিয়ে যাচ্ছে বসুন্ধরা গ্রুপ

বিশ্বমানের তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে ২০১৭ সালের মধ্যে পেপারলেস (কাগজবিহীন) অফিস কার্যক্রমের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে দেশের শীর্ষতম শিল্পগোষ্ঠী বসুন্ধরা গ্রুপ। এরই ধারাবাহিকতায় অফিস ব্যবস্থাপনার আন্তর্জাতিক মানের সফটওয়্যার কম্পানি এসএপির তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার শুরু করেছে প্রতিষ্ঠানটি। এতে প্রযুক্তিগত সহায়তা করছে দেশের খ্যাতনামা সফটওয়্যার প্রতিষ্ঠান এক্সাটেক সলিউশনস লিমিটেড।
গতকাল শনিবার সকালে ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের সম্মেলন কক্ষে এসএপির তথ্যপ্রযুক্তির কার্যক্রম উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত কর্মশালায় এসব তথ্য জানান বসুন্ধরা গ্রুপের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন এক্সাটেক সলিউশনসের পরিচালক রাজিব ইমরান, ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের প্রেস উইংয়ের হেড অব প্রেস সৈয়দ ফরহাদ আলী রেজা, এজিএম (এঅ্যান্ডএফ) এস এম মেহেদী হাসান, এইচওডি (এসঅ্যান্ডএম) মজিবুর রহমান, মানেজার (স্টোর) জাহিদুর রহমান প্রমুখ।
কর্মশালায় বসুন্ধরা গ্রুপের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা জানান, ২০১৭ সালের মধ্যে বসুন্ধরা গ্রুপের গ্রাহকসেবার মান বাড়াতে ডিজিটালাইজ করা হচ্ছে বসুন্ধরা গ্রুপকে। এরই অংশ হিসেবে শনিবার ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের প্রেস ইউনিটে এসএপি সফটওয়্যার চালুর কাজ শুরু করা হয়েছে। এর ফলে আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারি থেকে পুরোপুরি অনলাইনে চলে যাবে বসুন্ধরা গ্রুপের প্রেস ইউনিট।
ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের প্রেস উইংয়ের হেড অব প্রেস সৈয়দ ফরহাদ আলী রেজা বলেন, ‘এই সফটওয়্যারের মাধ্যমে পেপারলেস অফিসের দিকে যাবে প্রেস উইং। এতে স্বচ্ছতা এবং জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা সম্ভব হবে। এর পাশাপাশি গ্রাহকসেবার মানও অনেকগুণ বেড়ে যাবে। এতে করে কোথাও ভুল পোস্টিং হলে তা সহজেই ধরা পড়বে।’
এক্সাটেক সলিউশনসের পরিচালক রাজিব ইমরান বলেন, বসুন্ধরা গ্রুপ ২০১৭ সালের মধ্যে অভ্যন্তরীণ কার্যক্রম ডিজিটালাইজ করে অনলাইনে যাওয়ার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। এই কাজ অনেক আগে থেকেই শুরু হয়েছে। ২০১০ সালে বসুন্ধরা গ্রুপের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান মেঘনা সিমেন্ট মিলস লিমিটেড ও বসুন্ধরা এলপি গ্যাস লিমিটেডে এসএপি সফটওয়্যার চালু করা হয়েছে। আর ২০১৩ সালে বসুন্ধরা ইন্ডাস্ট্রিয়াল কমপ্লেক্স ও বসুন্ধরা লজিস্টিক লিমিটেডে সফলভাবে চালু করা হয়েছে।
গ্রাহকদের উচ্চ মানের সেবা প্রদানের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ২০০৯ সালে যাত্রা শুরু করে ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ। বাংলাদেশের তথাকথিত মুদ্রণ এবং প্যাকেজিং কম্পানি থেকে ভিন্ন ধারার প্রতিষ্ঠানটি এসএপিকে দীর্ঘমেয়াদি উন্নয়ন কৌশল হিসেবে বিবেচনা করছে।
এসএপি (www.sap.com) সফটওয়্যার বিশ্বের ১২০টি দেশের দুই লাখ ৬৩ হাজার কম্পানি ব্যবহার করছে। বাংলাদেশের খ্যাতনামা ৫০টি কম্পানি এসএপি ব্যবহার করছে।

Copyright © 2021 Sayem Sobhan Anvir. All Rights Reserved.