Pre-loader logo

কালের কণ্ঠ’র কুইজের পুরস্কার পেলেন যাঁরা

কালের কণ্ঠ’র কুইজের পুরস্কার পেলেন যাঁরা

সনি র‌্যাংগস পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কালের কণ্ঠ’র কুইজে প্রথম পুরস্কার ছিল ৪২ ইঞ্চি এলইডি টিভি। ড্র ভাগ্যে পুরস্কারটি জিতেছেন ঢাকার বঙ্গবাজারের সায়মা আনোয়ার। দ্বিতীয় পুরস্কার ফ্রিজ পেয়েছেন মিরপুরের নাজমা আক্তার। তৃতীয় পুরস্কার ওভেন পেয়েছেন কাশফিয়া। মোহাম্মদ সজিব চতুর্থ পুরস্কার জিতে পেয়েছেন স্মার্টফোন। পঞ্চম পুরস্কার ডিজিটাল ক্যামেরা পেয়েছেন ঢাকার রহিমা বেগম। ষষ্ঠ পুরস্কার ছিল দুটি সনি ফটো প্রিন্টার, জিতেছেন ভাষানটেকের গোলাম মোহাম্মদ জিকরিয়া ও মগবাজারের রিতা আক্তার। অন্য ক্যাটাগরিতে জিতেছেন যাঁরা-সপ্তম পুরস্কার : সনি ডিভিডি রাইটার পেয়েছেন বাঁধন আক্তার, ঢাকা; মো. সাদেক, গাইবান্ধা; হারুন অর রশিদ, ঢাকা; মো. শাহজাহান হোসেন, ঢাকা; রাশেদ খান, ঢাকা। অষ্টম পুরস্কার : সনি ওয়াকম্যান পেয়েছেন মাহজাবিন বেগম, ঢাকা; ওমর ফারুক, চাঁদপুর; বিদ্যুৎ কান্তি চৌধুরী, ঢাকা; ইসমত জাহান, কুমিল্লা; মোহাম্মদ ইলিয়াস, চট্টগ্রাম। নবম পুরস্কার : ক্রিকেট ব্যাট পেয়েছেন মাসুম বিল্লাহ, মো. রেজাউল করিম, মো. সাইফুল ইসলাম, মো. সজিব, তাছলিমা নাজনীন জেরিন, ইসলাম জাহান, মমতাজ জাহান পুতুল, সাইফুর রহমান, মো. হুমায়ুন কবির, মো. আরিফ, রাশেদ, ইমরান আহমেদ, মো. আরিফ হোসেন, সুব্রত চৌধুরী, হালিমা খানম, রফিকুল ইসলাম, সাদিয়া ইসলাম, আঁখি আক্তার, জাহিদ হাসান, সাইদুর রহমান, রেজাউল করিম, কফিলউদ্দিন মজুমদার, রিয়াদ, মারুফ, নুরুন্নাহার, জাহাঙ্গীর আলম, জাকির হোসেন।
অজি মোটরস : পুরস্কার ছিল মোটরসাইকেল। জিতেছেন-মহসীন হোসেন, শাহবাগ, ঢাকা; শাহীন, শাহী ঈদগাহ, সিলেট; মো. খায়রুল ইসলাম, রাজপাড়া, রাজশাহী; সৌরভ দাস, বাগমারা, খুলনা; নিরঞ্জন চন্দ্র রায়, তকেয়ারপাড়, রংপুর; ফাহমিদ চৌধুরী, বগুড়া রোড, বরিশাল; মো. মনির হোসেন, এস এস কে রোড, ফেনী।
বেস্ট ইলেকট্রনিকস : বেস্ট ইলেকট্রনিকস-কালের কণ্ঠ ক্রিকেট বিশ্বকাপ কুইজের প্রথম পুরস্কার ছিল ৪০ ইঞ্চি এলসিডি টিভি। জিতেছেন ঢাকার তাঁতীবাজারের পঙ্কজ কর্মকার। দ্বিতীয় পুরস্কার ২৪ ইঞ্চি এলইডি টিভি পেয়েছেন ঢাকার ছোলমাইদের কহিনূর আক্তার। অন্য ক্যাটাগরিতে পুরস্কারজয়ীরা হলেন-তৃতীয় পুরস্কার কারি কুকার পেয়েছেন সুফিয়া বাশার, খিলক্ষেত, ঢাকা। চতুর্থ পুরস্কার ব্লেন্ডার মেশিন পেয়েছেন মীর মোহাম্মদ সবুজ, রেজানুর রহমান, মো. হেলালুর রহমান, রিফাত বিন ইসলাম, জোবেদা খাতুন, হামিদা বেগম, হালিমা বেগম, মো. তসলিম উদ্দিন, সাবিনা আক্তার তিশা, মারুফ হাসান।
সায়মন হোটেল : চারটি ক্যাটাগরিতে মোট পুরস্কার ছিল ১১টি। জিতেছেন-প্রথম পুরস্কার : মো. আমির হোসেন, মাছিমপুর, সিলেট। দ্বিতীয় পুরস্কার : মো. মিজানুল হক, রাজশাহী ও সুমিত্র রানী শীল, খিলক্ষেত, ঢাকা। তৃতীয় পুরস্কার : মো. জুয়েল, ঢাকা; সাইদুর রহমান, ঢাকা; কার্তিক মজুমদার, কুমিল্লা। চতুর্থ পুরস্কার : মো. রকিন, ঢাকা; একরামুল হক, ঢাকা; পপি আক্তার, ঢাকা; সুয়েব মজুমদার, ঢাকা; হুমায়ুন বশির, কুমিল্লা।

Copyright © 2021 Sayem Sobhan Anvir. All Rights Reserved.