Pre-loader logo

এমন সংবাদ প্রকাশ করবেন না যাতে দেশে অস্থিরতা তৈরি হয় : সায়েম সোবহান আনভীর – বাংলাদেশ প্রতিদিন

এমন সংবাদ প্রকাশ করবেন না যাতে দেশে অস্থিরতা তৈরি হয় : সায়েম সোবহান আনভীর – বাংলাদেশ প্রতিদিন

বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন (ক্র্যাব) সদস্যদের উদ্দেশ্যে বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীর বলেছেন, আমাদের সবাইকে এক থাকতে হবে। আপনারা যেভাবেই হোক দেশটা শান্ত রাখবেন। এমন কোন সংবাদ প্রকাশ করবেন না, যাতে দেশে অস্থিরতা তৈরি হয়। এটা আপনাদের দায়িত্ব।

বৃহস্পতিবার বিকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে রূপায়ন এফপিএবি টাওয়ারে বসুন্ধরা গ্রুপের পক্ষ থেকে ক্র্যাবকে দেওয়া নতুন কার্যালয়ের ডেকোরেশনের (সাজসজ্জা) কাজ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান।

একই সঙ্গে ক্র্যাব সদস্যদের পাশে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করে ক্র্যাব মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড প্রদানের ঘোষণা দেন বিশিষ্ট এই শিল্পপতি। এর আগে, তিনি ফিতা কেটে ক্র্যাবের নতুন কার্যালয়ের ডেকোরেশনের কাজ উদ্বোধন করেন। এসময় তার সঙ্গে ছিলেন তার ছেলে আহমেদ ওয়ালিদ সোবহান। এছাড়া বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্পাদক নঈম নিজাম, কালের কণ্ঠের প্রধান সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন, ডেইলি সানের সম্পাদক এনামুল হক চৌধুরী, বাংলানিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের সম্পাদক জুয়েল মাজহার, নিউজ২৪ টেলিভিশনের নির্বাহী সম্পাদক রাহুল রাহা, ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের উপদেষ্টা আবু তৈয়বসহ ক্র্যাবের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সায়েম সোবহান আনভীর ক্র্যাব সদস্যদের উদ্দেশ্যে বলেন, ৩৬ বছর পর একটা স্থায়ী কার্যালয় আপনারা পেয়েছেন, আগামীতে আরও ভালো কার্যালয় উপহার দেওয়ার চেষ্টা করব। আগামীতে আপনাদের জন্য সুন্দর একটা ভবন করে দেওয়ার চেষ্টা করব, যেখানে আপনারা সুন্দরভাবে আপনাদের কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবেন।

তিনি বলেন, আমি আপনাদের পাশে সব সময় থাকতে চাই। ক্র্যাব সদস্যদের সুখ-দুঃখে যখন যেটা লাগবে আমাকে জানাবেন। আমার যতদূর ক্ষমতা আছে, সাধ্য আছে, আমি আপনাদের সহযোগিতা করব। আপনারা আমার পরিবার, আমি আপনাদের পরিবারের মতই পাশে থাকব।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক নঈম নিজাম বলেন, কমিটমেন্ট অনেকেই দেয়, কিন্তু সবাই রক্ষা করতে পারে না। কেউ কেউ কমিটমেন্ট রক্ষা করেন। সে রকম একজন মানুষ সায়েম সোবহান আনভীর। যিনি কথা দিলে তার নড়চড় হয় না। আমি মনে করি, আপনাদের সঙ্গে তার পথচলা কেবল শুরু হলো। তিনি একটি কার্যালয় দিয়েছেন। আরও অনেক বড় পরিসরে কিছু হবে, আমার দেখা মতে তিনি সে রকম একজন অনন্য উচ্চতার ব্যতিক্রমী মানুষ। তিনি মিডিয়াবান্ধব। করোনাকালেও তার অধীন কোনো মিডিয়া হাউজের বেতন-ভাতা বন্ধ হয়নি। তিনি মিডিয়াকর্মীদের যে কোনো সমস্যার কথা শুনলেই সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন। গণমাধ্যমকর্মীদের নিয়ে, গণমাধ্যম নিয়ে তার আরও অনেক ভালো পরিকল্পনা রয়েছে। তিনি একজন গণমাধ্যমকর্মীর, মতোই গণমাধ্যমের পাশে দাঁড়ান।

কালের কণ্ঠের প্রধান সম্পাদক কথা সাহিত্যিক ইমদাদুল হক মিলন তার বক্তব্যে সায়েম সোবহান আনভীরের বিভিন্ন অবদানের কথা তুলে ধরেন। মঞ্চে বসা সায়েম সোবহান আনভীরকে দেখিয়ে ইমদাদুল হক মিলন বলেন, যে লোকটাকে দেখতে পাচ্ছেন, তার হৃদয় আরও আরও হাজার হাজার গুণ বড়। যা পরিমাপ করে শেষ করা যায় না। এর প্রমাণ আপনারাই পাবেন। একজন সায়েম সোবহান আনভীরকে পাশে পেলে আর কিছুর প্রয়োজন পড়ে না। আপনাদেরও আর কিছুর প্রয়োজন পড়বে না। কারণ আপনাদের পাশে একজন মহান দানশীল বিরাট মনের অধিকারী সায়েম সোবহান আনভীর আছেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ক্র্যাব সভাপতি মির্জা মেহেদী তমাল। তিনি ক্র্যাবকে কার্যালয় দেওয়ার জন্য বসুন্ধরা গ্রুপের এমডি সায়েম সোবহান আনভীরের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। মির্জা মেহেদী তমাল বলেন, বসুন্ধরা গ্রুপের এমডি সায়েম সোবহান আনভীরের সুদৃষ্টির মধ্য দিয়ে ক্র্যাব সদস্যদের দীর্ঘ ৩৬ বছরের প্রত্যাশা পূরণ হলো।

সায়েম সোবহান আনভীরকে উদ্দেশ্য করে ক্র্যাব সভাপতি আরও বলেন, আপনি ক্র্যাব পরিবারের পাশে থাকার যে প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন, তা আমাদের শক্তি আর সাহসকে শতগুণে বাড়িয়ে দিয়েছে।

এছাড়াও অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ক্র্যাবের সাবেক সভাপতি পারভেজ খান, আবুল খায়ের ও মিজান মালিক, ক্র্যাবের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান বিকু, নির্বাহী সদস্য আমানুর রহমান রনি প্রমুখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন ক্র্যাবের সাংগঠনিক সম্পাদক আতাউর রহমান। এ সময় ক্র্যাবের সাবেক ও বর্তমান নেতৃবৃন্দ ও সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

বক্তারা সায়েম সোবহান আনভীর ও বসুন্ধরা গ্রুপের আর্তমানবতার সেবায় অবদান রাখার কথা উল্লেখ করে ভূয়সী প্রশংসা করেন। বক্তারা বিভিন্ন সময় বসুন্ধরা গ্রুপের পক্ষ থেকে বিভিন্ন ব্যক্তি, সংগঠনসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে নিঃস্বার্থ দানের কথা তুলে ধরেন। গণমাধ্যমসহ গণমাধ্যমকর্মীদের প্রয়োজনে সায়েম সোবহান আনভীর যেভাবে তার সহযোগিতার হাত উদার ভাবে বাড়িয়ে দেন, তা অনন্য- বলেন বক্তারা।

 

Source : বাংলাদেশ প্রতিদিন

Copyright © 2023 Sayem Sobhan Anvir.
All Rights Reserved.