Pre-loader logo

এক যুগে বাংলাদেশ প্রতিদিন

এক যুগে বাংলাদেশ প্রতিদিন

এক যুগে পা রাখলো দেশের সর্বাধিক প্রচারিত দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন। বর্ষপূর্তি উপলক্ষে রবিবার রাতে রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ প্রাঙ্গণে রাজনীতিবিদ, সাবেক মেয়র, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী-উপমন্ত্রীদের নিয়ে কেক কাটেন বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীর।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আগামীকাল সোমবার বসুন্ধরা ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটির নবরাত্রী হলে দিনভর বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের জন্য ১৯ জন বিশিষ্ট ব্যক্তিকে ‘গুণিজন সম্মাননা ২০২০-২০২১’ দেওয়া হবে।

বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্পাদক নঈম নিজাম ও প্রতিদিন পরিবারের সদস্য ছাড়াও কেক কাটা অনুষ্ঠানে অংশ নেন তথ্যপ্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও ঢাকা দক্ষিণ সিটির সাবেক মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন, নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম, সাবেক উপমন্ত্রী আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব এমপি, তাহজিব আলম সিদ্দিকী এমপি, বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক ভূমি উপমন্ত্রী অ্যাডভোকেট রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, বিএনপি নেতা ও সাবেক এমপি জহির উদ্দিন স্বপন, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে মেয়র পদে বিএনপির প্রার্থী ও দলের নির্বাহী কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়াল এবং কালের কণ্ঠ সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন।

 

শুভেচ্ছা বক্তব্যে বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীর পত্রিকাটি ১২ বছরে পা রাখায় বাংলাদেশ প্রতিদিন পরিবারের পুরো টিমকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান। তিনি বলেন, দেশের সর্বাধিক প্রচারিত ও জনপ্রিয় এ পত্রিকাটি আরো ভালো করুক, সেই প্রত্যাশাই করছি।

তথ্যপ্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান বলেন, সারা পৃথিবীর কাছে বাংলাদেশ প্রতিদিনের যে সাফল্য তা ধরে রাখবে। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনে ভূমিকা পালন করবে বলে আশা প্রকাশ করেন। আজকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর এই সময়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বাংলাদেশের ইতিহাস তুলে ধরবে সেই প্রত্যাশাই করছি।

ঢাকা দক্ষিণের সাবেক মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, এক যুগে পা রাখা উপলক্ষে বাংলাদেশ প্রতিদিন পরিবারের সবাইকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাচ্ছি।

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশ প্রতিদিন এক যুগে পদার্পণ করছে। বাংলাদেশের সঙ্গে প্রতিদিনই আছে। এটাই হচ্ছে আমাদের সবচেয়ে বেশি ভালো লাগা। বাংলাদেশ প্রতিদিনের প্রতি শুভ কামনা সব সময়।

একেএম এনামুল হক শামীম বলেন, সকাল বেলায় সব প্রত্যন্ত অঞ্চলে একটি প্রিয় পত্রিকার নাম বাংলাদেশ প্রতিদিন। আমার কাছেও সবচেয়ে প্রিয় পত্রিকা। তিনি দৃঢ় আশা প্রকাশ করেন যে, মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধু বা বাংলাদেশ প্রশ্নে এ পত্রিকাটি কোনো আপোষ করবে না।

আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব এমপি বলেন, অল্প সময়ে বাংলাদেশের ১৭ কোটি মানুষের হৃদয় জয় করেছে বাংলাদেশ প্রতিদিন। বাংলাদেশের রাজনীতি, সংস্কৃতি, ব্যবসায়ীসহ সব সেক্টরকে একস্থানে আবদ্ধ করেছে দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় পত্রিকা বাংলাদেশ প্রতিদিন।

তাহজীব আলম সিদ্দিকী এমপি বলেন, মানুষের প্রত্যাশার চেয়েও বেশি অবদান রাখছে বাংলাদেশ প্রতিদিন। বাঙালি জাতীয়তাবাদ, বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের প্রশ্নে বাংলাদেশ প্রতিদিন অবিচল থেকেছে। বাংলাদেশ প্রতিদিন এ আছে সৃষ্টিশীলতা-সৃজনশীলতা আছে।

অ্যাডভোকেট রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু বলেন, বাংলাদেশ প্রতিদিন আমার সবচেয়ে প্রিয় পত্রিকা। আজকে ঘুম থেকে উঠে যদি বাংলাদেশ প্রতিদিন না দেখি তাহলে অস্থির লাগে। শুধু আমিই নই সব শ্রেণি পেশার মানুষ বাংলাদেশ প্রতিদিন পড়েন। এমন কোনো এলাকা নেই গ্রাম নেই যেখানে বাংলাদেশ প্রতিদিন যায় না।

এসময় জহির উদ্দিন স্বপন বাংলাদেশ প্রতিদিন পরিবারকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।

তাবিথ আউয়াল বলেন, গত এক বছরে ভয়ঙ্কর ও খারাপ পরিস্থিতি মোকাবেলা করেছে বাংলাদেশসহ সারাবিশ্ব। ওই সময় অনেক গণমাধ্যম বন্ধ হয়ে যাওয়ার উপক্রম হয়। ঠিক সেই মুহূর্তে বাংলাদেশ প্রতিদিন শুধু টিকেই থাকেনি, এই মহামারি মোকাবেলায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকাও পালন করেছিল। এই ভূমিকার জন্য বাংলাদেশই বাংলাদেশ প্রতিদিনের কাছে কৃতজ্ঞ।

কালের কণ্ঠ সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন বলেন, বাংলাদেশ প্রতিদিন কোটি কোটি মানুষের হৃদয় জয় করেছে। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকেও প্রকাশিত হচ্ছে বাংলাদেশ প্রতিদিন এটা একটা ইতিহাস। এর আগে যা, বাংলাদেশের সংবাদপত্রের জগতে কখনোই ছিল না।

অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্যে নঈম নিজাম বলেন, করোনাকালে সংবাদপত্র একটি কঠিন সময়ে আবর্তিত হয়। সেই কঠিন সময় বাংলাদেশ প্রতিদিন অতিক্রম করতে সক্ষম হয়েছে। পত্রিকা আবার সেই আগের অবস্থানে ফিরে যাচ্ছে।

এছাড়াও ডেইলি সান সম্পাদক এনামুল হক চৌধুরী, কর্নেল (অব.) ফিরোজ শাম্মী, বাংলাদেশ প্রতিদিনের নির্বাহী সম্পাদক পীর হাবিবুর রহমান, বাংলাদেশ প্রতিদিনের যুগ্ম-সম্পাদক আবু তাহের, নিউজ টোয়েন্টিফোরের হেড অব নিউজ রাহুল রাহা, বাংলানিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের সম্পাদক জুয়েল মাজহার, বাংলাদেশ প্রতিদিনের উপ-সম্পাদক মাহমুদ হাসান, বার্তা সম্পাদক কামাল মাহমুদ, প্রধান প্রতিবেদক মনজুরুল ইসলাম, সার্কুলেশন বিভাগের প্রধান বিল্লাল হোসেন মন্টু প্রমুখ।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ প্রতিদিন ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের অন্যতম প্রকাশনা। এটি দেশের সর্বাধিক প্রকাশিত দৈনিক যা ২০১০ সালের ১৫ মার্চ যাত্রা শুরু করে।

Source: Bangladesh Pratidin

Copyright © 2021 Sayem Sobhan Anvir. All Rights Reserved.